একজন নির্ভেজাল ভালো মানুষকে হারালো বাংলা সিনেমা জগৎ

একজন নির্ভেজাল ভালো মানুষকে হারালো বাংলা সিনেমা জগৎ

নিগমানন্দ ঠাকুর : বয়সে কয়েক বছরের ছোট-বড় হলেও বাংলা সিনেমার চারজন নায়ক ছিলেন প্রায় সমসাময়িক । এই চারজন অর্থাৎ তাপস পাল, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, চিরঞ্জিত চক্রবর্তী ও অভিষেক চট্টোপাধ্যায় অভিনীত সিনেমা শহর ও শহরতলীর দর্শকদের আনন্দ দিয়েছে বহু বছর ধরে । তাপস পাল চলচ্চিত্র জগতকে বিদায় জানিয়ে পরলোকে চলে গেছেন ২০২০ সালে । 
হুগলির চন্দননগরের তাপস পালের পর এবার চলে গেলেন কলকাতার বরানগরের অভিষেক চট্টোপাধ্যায় । যদিও চলচ্চিত্র জগতে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পর থেকে তিনি ছিলেন দক্ষিণ কলকাতার বাসিন্দা । মাত্র ৫৭ বছর বয়সে চলে গেলেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের “মিঠু” ।  
অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের জন্ম ১৯৬৪ সালের ৩০ এপ্রিল । উত্তর কলকাতার “বরানগর রামকৃষ্ণ মিশন আশ্রম”-এর প্রাক্তন ছাত্র অভিষেক চলচ্চিত্র জগতে সবার মন জয় করেছেন তাঁর ব্যবহার দিয়ে । ১৯৮৬ সালে তরুণ মজুমদার পরিচালিত “পথভোলা” সিনেমার মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছিল তাঁর অভিনয় জীবন । তারপর বহু সিনেমাতে অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের অভিনয় দর্শকদের ভালো লেগেছে বলেই তিনি অভিনেতা থেকে নায়ক হয়ে উঠেছিলেন । 
নায়ক হওয়ার পরেও বাংলা সিনেমার দর্শকরা তাঁকে বহু সিনেমাতে নায়কের ছোট ভাই অথবা নায়কের বোনের প্রেমিকের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখেছেন । বাংলা সিনেমার জোয়ার যখন ভাঁটায় পরিণত হলো তখন সাময়িক বিরতি নিয়ে অভিষেক শুরু করলেন ছোটপর্দায় অভিনয় । সেখানেও তিনি সফল  l 
জন্মগত প্রতিভাকে যে আটকে রাখা যায় না অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের অভিনয় তার বড় প্রমাণ । শহর, শহরতলী ও গ্রামবাংলায় সিনেমা নিয়ে যাঁরা বিশেষ খোঁজ খবর রাখেন না তাঁদের ধারনা ছিল প্রসেনজিৎ ও অভিষেক দুই ভাই, কারণ তাঁদের দু’জনের পদবী একই, চট্টোপাধ্যায় । 
২০২২ সালের ২৪ মার্চ দিনটা বাংলা চলচ্চিত্র জগতের একটা কালো দিন হয়ে থাকলো কারণ এই জগৎ একজন ভালো অভিনেতাকেই হারালো শুধু নয় হারালো একজন ভালো মনের নির্ভেজাল মানুষকে, যিনি বর্তমান যুগে দাঁড়িয়েও ছিলেন রাজনীতিক উর্দ্ধে । একজন অভিনতা শুধু অভিনেতার নামাবলী গায়েই বিদায় নিলেন ।

administrator

Related Articles