আরসিবিকে গুড়িয়ে দিল কেকেআর

আরসিবিকে গুড়িয়ে দিল কেকেআর

শিঞ্জিনী কর্মকারঃ আইপিএলে আরসিবি শুরুটা করেছিল খুব ভাল। সাত ম্যাচের পাঁচটি জিতে তালিকায় তৃতীয় স্থানেও ছিল তারা। কিন্তু সোমবার দ্বিতীয় পর্বে লড়াই ছিল মর্গ্যানদের সঙ্গে কোহলি ব্রিগেডের। টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন বিরাট। কিন্তু সেই সিদ্ধান্তই ব্যাঙ্গালোরের পক্ষে কার্যত ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়।

ব্যাট হাতে এদিন ফের একবার ব্যর্থ হলেন অধিনায়ক বিরাট। মাত্র পাঁচ রানে এলবিডব্লিউ করে তাঁকে ফিরিয়ে দেন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা। এরপর উইকেটকিপার শ্রীকর ভারত এবং দেবদূত পাডিক্কালের মধ্যে ছোট একটি পার্টনারশিপ গড়ে উঠেছিল ঠিকই, কিন্তু ফার্গুসনের বলে ২২ রানে দেবদূত ফিরতেই কার্যত ভেঙে পড়ে ব্যাঙ্গালোর। কেকেআরের বিরুদ্ধে মাত্র ৯২ রানে অল আউট হয়ে যায় ব্যাঙ্গালোর।  সর্বোচ্চ রান দেবদত্ত পাড়িক্কালের (২২), শ্রীকর ভরত (১৬)। পেস বোলার হর্ষ প্যাটেল ১২ না করলে আরও রুগ্ন দেখাত আরসিবির স্কোরবোর্ড।

অন্যদিকে এদিন ফের একবার বল হাতে রীতিমতো বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন রাসেল এবং বরুণ চক্রবর্তী। একদিকে যেমন ম্যাক্সওয়েলকে বোল্ড করেন বরুণ, তেমনি অন্যদিকে ডিভিলিয়ার্সকেও খাতা খুলতে দেননি রাসেল।হাসারঙ্গা, জেমিনশন থেকে শুরু করে হর্শল প্যাটেল সকলেই ছিলেন ক্ষণিকের অতিথি। যার জেরে শেষ পর্যন্ত ১৯ তম ওভারে মাত্র ৯২ রানেই গুটিয়ে যায় রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের ইনিংস। কলকাতার হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি করে উইকেট তুলে নেন বরুণ চক্রবর্তী এবং আন্দ্রে রাসেল।

লক্ষ্য যখন ৯৩ রানের তখন  যে কোনও টিম চাপহীন ক্রিকেট খেলে। কেকেআরও তাই করল। শুভমন গিল আর এই ম্যাচে অভিষেক হওয়া বাঁহাতি ওপেনার বেঙ্কটেশ আইয়ারের ৮২ রানের পার্টনারশিপটাই সব গল্প শেষ করে দিল। মাত্র ১০ ওভারেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নাইটরা। এই ম্যাচে প্রাপ্তি বেঙ্কটেশ। মাত্র ২৭ বলে ৪১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে সুন্দর জয়ের মুহূর্ত উপহার দেন তিনি।

৮ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তিনেই থেকে গেল বিরাটের টিম। কিন্তু কেকেআর ম্যাচে মুখ থুবড়ে পড়া রানরেটে ব্যাপক প্রভাব ফেলল। পরের ম্যাচ চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে। না জিততে পারলে কিন্তু প্লে-অফ থেকে দূরে সরে যেতে হবে। কেকেআর উঠে এল পাঁচে। ইওন মর্গ্যানের টিম এই প্রথম এতটা আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ৯২ (দেবদত্ত ২২, ভরত ১৬, হর্ষ ১২, রাসেল ৩/৯, বরুণ ৩/১৩, ফার্গুসন ২/২৪)। কলকাতা নাইট রাইডার্স ৯৪/১ (শুভমন ৪৮, বে ঙ্কটেশ নট আউট ৪১, চাহাল ১/২৩)।

administrator

Related Articles